ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৫ ১৪৩০

দর্শনীয় এই গ্রামে সেলফি তুলতেও লাগে টাকা

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩:২০, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

দর্শনীয় এই গ্রামে সেলফি তুলতেও লাগে টাকা

দর্শনীয় এই গ্রামে সেলফি তুলতেও লাগে টাকা

কোথাও ঘুরতে যাবেন, আর সেখানে ছবি তুলবেন না এমনটি ভাবাও কষ্টকর। অনেকে তো শুধু ছবি তুলতেই হাজার হাজার কিংবা লাখ টাকা খরচ করে দর্শনীয় বিভিন্ন স্পটে ঘুরতে যান। তবে জানলে অবাক হবেন, এমন এক গ্রাম আছে যেখানে ভ্রমণে গিয়ে সেলফি তুলতে গেলে অর্থ খরচ করতে হবে।বলছি, ভিয়েতনামের ধূপকাঠির গ্রামের কথা। এই গ্রাম অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী হয়ে উঠছে শুধু ধূপকাঠির কারণে। গ্রামটির আসল নাম ‘কাং ফু চাউ’। এই গ্রামে ঢুকতেই আপনার চোখ ধাঁধিয়ে যাবে। সবখানে শুধু রঙিন ধূপকাঠি দেখতে পাবেন।

এই ধূপকাঠি গ্রাম সৌন্দর্য বাড়ানোর পাশাপাশি সেখানকার মানুষকে আর্থিকভাবেও শক্তিশালী করে তুলছে। এছাড়া এই রঙিন ধূপকাঠিগুলো দূর-দূরান্তের পর্যটকদেরও আকৃষ্ট করছে। ভিয়েতনামের এই গ্রামে তৈরি ধূপকাঠিগুলো রঙিন। মূলত তিনটি রঙের ধূপকাঠি তৈরি হয় সেখানে- লাল, সবুজ ও হলুদ।

সেখানে ধূপকাঠিগুলো প্রচুর বিক্রি হয়। ওই গ্রামের বেশিরভাগ বাড়ির বাইরে ফাঁকা জমিতে এই ধূপকাঠির গুচ্ছ শুকিয়ে রাখার দৃশ্য দেখতে পাবেন।

সেলফির জন্য কেন টাকা লাগে?

জার্মান নিউজ ওয়েবসাইট ডি ডব্লিউ এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই গ্রামের মানুষ শুধু এই রঙিন ধূপকাঠিগুলো থেকে অর্থ উপার্জন করছে না, পর্যটকদের কাছ থেকেও প্রচুর অর্থ উপার্জন করছে।

বিশেষ করে সেখানকার মানুষেরা এই ধূপকাঠি দিয়ে সেলফি তুলতে চায় এমন পর্যটকদের কাছ থেকে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা নেয়। এই পরিমাণ ৫০ হাজার ডং, যা বাংলাদেশি টাকায় ২৫০-৩০০ এরও বেশি হতে পারে।

তবে সেখানে বিক্রি হওয়া ধূপকাঠির দাম খুবই কম। এই কারণেই এখানে বেড়াতে আসা পর্যটকরাও প্রচুর ধূপকাঠি কিনে নিয়ে যায়।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়