ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৫ ১৪৩০

ময়মনসিংহের নান্দাইলে রঙ্গিন ফুলকপি চাষে সফল বাদল বর্মন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:০৪, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

ময়মনসিংহের নান্দাইলে রঙ্গিন ফুলকপি চাষে সফল বাদল বর্মন

ময়মনসিংহের নান্দাইলে রঙ্গিন ফুলকপি চাষে সফল বাদল বর্মন

ময়মনসিংহের নান্দাইলে রঙ্গিন ফুলকপি চাষ করে ভাইরাল চাষি হচ্ছে বাদল বমর্ন। উজ্জ্বল হলুদ, গাঢ় বেগুনী ও খয়েরি রঙ্গের ফুলকপি চাষ করে রীতিমত তারকা বনে গেছেন হোমিওপ্যাথি ডাক্তার বাদল চন্দ্র বর্মন। পেশায় হোমিওপ্যাথি ডাক্তার, শখের বসে করতেন বাড়ির আঙ্গিনায় সবজি চাষ। 

শখের বসে সবজি চাষে ব্যাপক লাভবান হওয়ায় নিজ পেশার পাশাপাশি দ্বিতীয়বার করেছে রঙ্গিন ফুলকপি বাগান। রঙ্গিন ফুলকপি বাগান করে রীতিমতো ভাইরাল হোমিওপ্যাথি এই ডাক্তার। এমনি ঘঠনা ঘটেছে,ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলাধীন পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডে বাসিন্দা হোমিওপ্যাথি ডাক্তার বাদল চন্দ্র বর্মনের সাথে। শীতকালীন সবজি হিসাবে বাহারি রঙ্গের ফুলকপি চাষ শুরু করেছেন তিনি গত বছর থেকে। এর মাঝেই রং-বেরঙের বাহারি ফুলকপি দেখতে দূরদূরান্ত থেকে উৎসুক জনতা ভিড় করছে ফুলকপির আবাদি জমিতে। রঙ্গিন ফুলকপি দেখতে কোন অংশেই ফুলের চেয়ে কম সুন্দর নয়। 

রঙ্গিন ফুলকপি গুলোর আকৃতি সাদা ফুলকপির মতো হলেও, বাদল চন্দ্রের কমলা, বেগুনি, খয়ারী রঙ্গের ফুলকপি যেন অনেকটাই আকর্ষণীয়। রঙ্গিন ফুলকপি বিভিন্ন রঙ্গের হয়ে থাকে যার মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হলো কমলা, খয়ারী ও বেগুনি। বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ২০২১ সালে “রঙ্গিন” ফুলকপির চাষ শুরু হয়। নান্দাইল কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সহযোগিতায় বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চলের ফসলের নিবীড়তা বৃদ্ধিকরণ প্রকল্পের আওতায় পৌরসভা ব্লকে দ্বিতীয়বারের মত রঙিন ফুলকপি চাষ হচ্ছে। নান্দাইল পৌরসভা ব্লকের কৃষক বাদল চন্দ্র বর্মণ নিজের ২০ শতাংশ জমিতে পনেরশত রঙ্গিন ফুলকপির চারা রোপন করেছে। কৃষি অফিসের বিভিন্ন উৎপাদন ও পরিচর্যা বিষয়ক পরামর্শ প্রদানের মাধ্যমে বর্তমানে কৃষক বাদল চন্দ্র বর্মনের জমিতে রঙ্গিন ফুলকপির বাম্পার ফলন হয়েছে। ২০ শতাংশ জমিতে ২০ হাজার থেকে ২৫ হাজার টাকা খরচ হয়েছে বলে জানায় বাদল চন্দ্র বর্মণ। 

ডাক্তার বাদল চন্দ্র বর্মণ বলেন, কৃষি অফিসের পরামর্শে আমি প্রথমবার রঙ্গিন ফুলকপি চাষ করে অন্যান সবজির চেয়ে দ্বিগুণ লাভবান হয়েছি। এবারও খরচের তুলনায় তিন-চার গুন লাভ হবে। 

তিনি আরও বলেন, ইতিমধ্যেই আগ্রহী মানুষ রঙ্গিন ফুলকপি কেনার জন্য ক্রেতার তালিকায় নিজ-নিজ নাম অন্তর্ভুক্ত করে যাচ্ছেন। পৌরসভার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তার মাহমুদুল হাসান (সুমন) জানায়, রঙ্গিন সবজিতে অন্যান্য রঙ্গের সবজির তুলনায় পঁচিশ গুন বেশি ভিটামিন “এ” উপাদান থাকে। আবার অন্যতম অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট অ্যান্থোসায়ানিনের উপস্থিতির কারণে ফুলকপির রং বেগুনি,খয়ারী ও কমলা রঙ্গের হয়। বাদল চন্দ্র বর্মণকে ১৫ শ, রঙ্গিন ফুলকপির চারা প্রদান করেছি, আবাদ করার জন্য। নান্দাইল উপজেলা কৃষি অফিস থেকে প্রান্তিক পর্যায়ে কৃষকদের পরামর্শ দিয়ে থাকি। রঙ্গিন ফুলকপির ফলন ভালো হয়েছে। আমরা আশাবাদী কৃষক লাভবান হবে। নান্দাইল উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আনিসুজ্জামান বলেন, চীন থেকে আমদানি করা হয়েছে এই বাহারি রঙের ফুলকপির বীজ। তাছাড়া বাহারি রঙের ফুলকপি গুলো ক্যারোটিন সমৃদ্দ এবং ক্যান্সার প্রতিরোধক। সমসাময়িক সবজি গুলোর পাশাপাশি এই বাহারি রঙ্গের সবজি কৃষক চাষ করলে অধিক মুনাফা অর্জন করতে পারবে বলে আমি মনে করছি।

সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়