ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২০ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৫ ১৪৩১

মোংলা বন্দরে ৮ মিটার ড্রাফটের জাহাজ ভেড়ানোর রেকর্ড

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২০:৩৩, ২৫ মে ২০২৩  

মোংলা বন্দরে ৮ মিটার ড্রাফটের জাহাজ ভেড়ানোর রেকর্ড

মোংলা বন্দরে ৮ মিটার ড্রাফটের জাহাজ ভেড়ানোর রেকর্ড

মোংলা বন্দর চ্যানেলের ইনার বারে ড্রেজিং কার্যক্রম প্রায় সমাপ্তির পথে। এখনো কিছু কাজ বাকি রয়েছে। তবে ইনার বারে ড্রেজিংয়ের ফলে বন্দরে ৮ (আট) মিটার পর্যন্ত ড্রাফটের জাহাজ ভিড়তে পারছে; যা মোংলা বন্দরের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ড্রাফটের জাহাজ ভেড়ানোর রেকর্ড।

গতকাল বুধবার (২৪ মে) মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সংস্থাসমূহের ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের আরএডিপিভুক্ত জিওবি ও সংস্থার নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়নাধীন উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের এপ্রিল ২০২৩ পর্যন্ত সময়ের বাস্তবায়ন অগ্রগতি সংক্রান্ত পর্যালোচনা বৈঠকে এসব তথ্য জানানো হয়।

সভায় জানানো হয়, আগামীতে বন্দরে ৮.৫ মিটার এবং আগামী বছর ১০ মিটার ড্রাফটের জাহাজ ভেড়ানোর লক্ষ্যে ড্রেজিং কাজ চলমান রয়েছে।

সভায় আরও জানানো হয়, মোংলা বন্দর থেকে চাঁদপুর-মাওয়া-গোয়ালন্দ হয়ে পাকশী পর্যন্ত নৌরুটের নাব্যতা উন্নয়ন করেছে বিআইডব্লিউটএ। এর ফলে মোংলা বন্দর থেকে নৌপথে রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য ভারী মালামাল পরিবহনের ক্ষেত্রে কোন সমস্যা হয়নি। রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য এ পর্যন্ত ৬৫টি জাহাজ মোংলা থেকে সহজেই আসতে পেরেছে। এজন্য বিআইডব্লিউটিএ-কেও ধন্যবাদ জানানো হয়।

মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মঞ্জয় কুমার বণিক, চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এম সোহায়েল (অনলাইনে), মোংলা বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল গোলাম সাদেক (অনলাইনে), মোংলা বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মীর এরশাদ আলী, বাংলাদেশ স্থলবন্দরের চেয়ারম্যান মো. আলমগীর, বিআইডব্লিউটিসি’র চেয়ারম্যান এস এম ফেরদৌস, বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান  কমডোর আরিফ আহমেদ মোস্তফাসহ অন্যান্য সংস্থা প্রধানগণ সরাসরি ও অনলাইনে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে আরএডিপিভূক্ত ৩৪টি, নিজস্ব অর্থায়নে চারটি এবং স্কিমের আওতায় একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এজন্য বরাদ্দ রয়েছে ৪ হাজার ৬৪৩ কোটি ২৬ লাখ টাকা।

আরও পড়ুন
সর্বশেষ
জনপ্রিয়