ঢাকা, বুধবার   ০৬ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ২১ ১৪২৯

দ্বিতীয়বার ঘর ভাঙছে বিশ্বের ষষ্ঠতম ধনী গুগলের সহপ্রতিষ্ঠাতার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩:০৫, ২২ জুন ২০২২  

নিকোল শ্যানাহান ও সের্গেই ব্রিন

নিকোল শ্যানাহান ও সের্গেই ব্রিন

কিছুদিন আগে বিয়েবিচ্ছেদ হয়েছে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষধনী বিল গেটসের, এরপর জেফ বেজোসের। এবার সংসার ভাঙতে চলেছে বিশ্বের ষষ্ঠতম ধনী গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা সেরগেই ব্রিনের। তার বিচ্ছেদের খবরে এরই মধ্যে জল্পনা শুরু হয়ে গেছে খোরপোশের অংক নিয়ে।

৪৮ বছর বয়সী সেরগেই ও তার স্ত্রী নিকোল শানাহান চলতি মাসে তিন বছরের সংসার জীবনের ইতি টানতে যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালতে আবেদন করেছেন। বিচ্ছেদের কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, তাদের মধ্যে যে বিভেদ বা মতপার্থক্য তৈরি হয়েছে, তা আর মিটমাট করা সম্ভব নয়।

এরপর থেকেই আলোচনা শুরু হয়েছে তাদের বিচ্ছেদ পরবর্তী বিষয়, অর্থাৎ স্ত্রীর খোরপোশ, সন্তানের হেফাজত ইত্যাদি নিয়ে।

ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার ইনডেক্সের তথ্যমতে, সেরগেই ব্রিনের বর্তমান সম্পদের মূল্য ৯ হাজার ৪০০ কোটি মার্কিন ডলার। এর বড় অংশই তিনি আয় করেছেন গুগলের শেয়ার থেকে। ১৯৯৮ সালে ল্যারি পেজের সঙ্গে যৌথভাবে গুগল প্রতিষ্ঠা করেন সেরগেই। পরে প্রতিষ্ঠানটির নাম বদলে অ্যালফাবেট রাখা হয়। ২০১৯ সালে পেজ ও সেরগেই উভয়েই অ্যালফাবেটের দায়িত্ব থেকে সরে যান। তবে তারা এখনো প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদের সদস্য এবং শেয়ারহোল্ডারদেরও নিয়ন্ত্রণ করেন।

সেরগেই এর আগে অ্যান ওয়াজসিকিকে বিয়ে করেছিলেন। ২০১৫ সালে তাদের বিচ্ছেদ হয়। এরপর ২০১৮ সালের ৭ নভেম্বর বিয়ে করেন সেরগেই-নিকোল। সেই বিয়ে ছিল একেবারেই আড়ম্বরহীন।

২০২১ সালের ডিসেম্বর থেকে আলাদা থাকছেন সেরগেই এবং নিকোল। কিছুদিন আগে ক্যালিফোর্নিয়ার সান্টা ক্লারা আদালতে ডিভোর্সের আবেদন করেছেন তারা। তাদের সংসারে তিন বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। আগের সংসারেও দুটি সন্তান রয়েছে সেরগেইয়ের।

গত চার বছরে সেরগেই তৃতীয় ধনকুবের যিনি বিয়েবিচ্ছেদের মুখে পড়েছেন। তার আগে মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস এবং অ্যামাজন প্রধান জেফ বেজোসের বিচ্ছেদের মামলা শেষ পর্যন্ত মোটা অংকের খোরপোশে গিয়ে থেমেছিল।

কিন্তু সেরগেইয়ের কাছ থেকে কি তেমন কিছু পাবেন নিকোল? আইনজীবীরা জানিয়েছেন, এ বিষয়ে আগাম একটি ব্যবস্থা করে রেখেছিলেন সেরগেই। বিয়ের আগে নিকোলকে দিয়ে একটি প্রাক-বিয়ে চুক্তিপত্রে সই করিয়েছিলেন তিনি। যার জেরে বিচ্ছেদ হলেও সেরগেইয়ের সম্পত্তির দাবি করতে পারবেন না নিকোল।

অবশ্য আইনজীবীরা বলছেন, এখনই নিশ্চিত করে কিছু বলা যাবে না। বিষয়টি যেহেতু বিচারাধীন, তাই সিদ্ধান্ত বদলাতেও পারে।

সূত্র: ব্লুমবার্গ

সর্বশেষ
জনপ্রিয়